skip to Main Content

এ কঝলক

আবাসন মেলায়
বন্দরনগরী চট্টগ্রামের পাঁচ তারকা হোটেল রেডিসন ব্লুতে আয়োজন করা হয় চার দিনব্যাপী রিহ্যাব ফেয়ার ২০১৮। ৮ থেকে ১১ ফেব্রুয়ারি। পরিকল্পিত আবাসন গড়তে প্রতিবছরের মতো এবারও রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (রিহ্যাব) বিশেষ মেলার আয়োজন করে। আবাসন খাতের সবচেয়ে বড় এই মেলাতে বিভিন্ন আবাসন কোম্পানি, ব্যাংক ও আর্থিক খাতসহ মোট ৮২টি স্টলে ৫৮টি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করে। মেলায় কো-স্পন্সর হিসেবে অংশগ্রহণ করে আবুল খায়ের সিরামিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের লাক্সারি স্যানিটারি ওয়্যার ব্র্যান্ড স্টেলা এবং ফাহিম মার্বেল। স্টেলার রয়েছে নজরকাড়া সব ইতালিয়ান ডিজাইনের ওয়াশ বেসিন, কমোড, ইউরিনাল, এশিয়ান প্যান এবং অ্যাকসেসরিজ। মেলা উপলক্ষে ক্রেতাদের জন্য ছিল নানা অফার।

বাটার উৎসব
‘আড়ং ডেইরি বাটার যুদ্ধে জয়ী হবে কে?’ স্লোগান নিয়ে ঢাকার গুলশানের একটি কনভেশন হলে ১১ মার্চ অনুষ্ঠিত হয় আড়ং ডেইরি রান্নাক্ষেত্র বাটার উৎসবের গ্র্যান্ড ফিনাল। প্রাথমিকভাবে ঢাকার বিভিন্ন রান্নার স্কুলে বাছাই পর্বের মাধ্যমে ৬০ জন প্রতিযোগীকে নির্বাচন করা হয়। এ ছাড়া ফেসবুক ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে ফাইনাল রাউন্ডে অংশ নেয় ১০ প্রতিযোগী। রান্নার স্কুল এবং ফেসবুক থেকে নির্বাচন করে মোট ৭০ জন প্রতিযোগী নিয়ে, এই গ্র্যান্ড ফাইনাল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। সেখান থেকে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে সেরা ৩ জন বিজয়ী নির্বাচন করা হয়। যেখানে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, প্রথম রানারআপ হয়েছেন রোনক জাহান, দ্বিতীয় রানারআপ রোমানা আলম। বিজয়ীরা জিতে নেয় ‘সেরা রন্ধনশিল্পী’র খেতাব ও পুরস্কার। আড়ং ডেইরি রান্নাক্ষেত্র বাটার উৎসবের গ্র্যান্ড ফিনালের বিচারক ছিলেন নাহিদ উসমান ও আলপনা হাবিব। এ ছাড়া উপস্থিত ছিলেন আড়ং ডেইরির ডিজিএম (সেলস) ছাইফুর রহমান, এজিএম (মার্কেটিং) হোসাইন শাহ্ নেওয়াজ, ডেপুটি ব্র্যান্ড ম্যানেজার নুর হোসাইন ইমরানসহ অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

ট্রেন্ডজের নতুন আউটলেট
দেশীয় রেডি টু ওয়্যার ব্র্যান্ড ট্রেন্ডজ মোহাম্মদপুরে নতুন আউটলেট উদ্বোধন করেছে। ২৪ মার্চ সন্ধ্যায় শোরুমটির উদ্বোধন করেন ইমদাদুল হক মিলন। আরও উপস্থিত ছিলেন ব্যাবিলন গ্রুপের পরিচালক এস এম এমদাদুল ইসলাম, আব্দুস সালাম, মইনুল আহসান ও আবিদুর রহমান। ক্রেতা চাহিদার কথা চিন্তা করে শ্যামলীর রিং রোডে এই আউটলেট খোলা হয়েছে বলে জানায় ট্রেন্ডজ কর্তৃপক্ষ। নারী-পুরুষের আধুনিক ডিজাইনের শার্ট, পোলো শার্ট, টি-শার্ট, পাঞ্জাবি, সালোয়ার-কামিজ, কুর্তিসহ ফ্যাশন হাউজটির সর্বশেষ কালেকশন পাওয়া যাবে এখানে।

মুন্নু সিরামিকের ফ্ল্যাগশিপ শোরুম
সিরামিক টেবিলওয়্যার প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান মুন্নু সিরামিক বরিশালে তাদের ফ্ল্যাগশিপ শোরুমে উদ্বোধন করেছে। ৯ ফেব্রুয়ারি বরিশালের বটতলাস্থ হালিমা প্লাজায় এই শোরুমের উদ্বোধন করেন মুন্নু গ্রুপের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশীদ মাইমুনুল ইসলাম। তিন দশক ধরে সিরামিক টেবিলওয়্যারে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে সুনামের সঙ্গে ব্যবসা করছে মুন্নু সিরামিক।

বেকারস ফেস্ট
বাংলাদেশের হোম মেইড ও কাস্টমাইজড কেকের ইতিহাস খুব বেশি দিনের নয়। ২০১৪ সালে দুজন বেকার বেকিং টিপস, ট্রেইনিং অ্যান্ড টিউটোরিয়াল নামের একটি গ্রুপ খোলেন। মূলত বন্ধুদের বেকিং-সংক্রান্ত নানা প্রশ্নের উত্তর দেয়াই ছিল উদ্দেশ্য। ২০১৭ সালে গ্রুপের একজন সদস্য প্রস্তাব করেন, এই গ্রুপের সঙ্গে জড়িত প্রফেশনাল ও সেমি প্রফেশনাল বেকারদের নিয়ে একটি মিলনমেলার আয়োজন করা যেতে পারে। সেই উদ্যোগ থেকেই গত বছরের ২৬ মার্চ বেশ কয়েকজন বেকারের আর্থিক ও সাংগঠনিক সহযোগিতায় প্রথম মিলনমেলার আয়োজন করা হয়। তখনি বিভিন্ন বেকারের পরামর্শে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, নিজেদের খাবার ও কাজের প্রদর্শনীর আয়োজন করা হবে।
এরই ধারাবাহিকতায় দেশের জনপ্রিয় হোম বেকারদের অংশগ্রহণে বিডি বেকারসের তত্ত্বাবধানে বেকার’স ফেস্টিভ্যাল ২০১৮ অনুষ্ঠিত হয়। ধানমন্ডির মাইডাস সেন্টারে ৯ ও ১০ মার্চ দুদিনব্যাপী এ বেকিং মেলার আয়োজন করা হয়। মেলায় হোম মেইড কেক, ডেজার্ট ও অন্যান্য বেকিং খাবার প্রদর্শন ও বিক্রি করা হয়। এ ছাড়া কাস্টমাইজড কেক তৈরি ও ডেকোরেশন বিষয়ে কয়েকটি ওয়ার্কশপের আয়োজন করা হয়। মেলাটি ছিল সবার জন্য উন্মুক্ত। বেকিংয়ের প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম ও কাঁচামাল সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানও তাদের পসরা নিয়েছিল একই ছাদের নিচে।

সার্ক কান্ট্রি ফ্যাশন শো
নেপালের কাঠমান্ডুতে ১৬ থেকে ১৮ মার্চ অনুষ্ঠিত হয় ষষ্ঠ সার্ক বিজনেস লিডার্স কনক্লেভ। যেখানে ১৭ মার্চ সার্ক চেম্বারের আয়োজনে ছিল নজরকাড়া ফ্যাশন শো। এতে অংশগ্রহণ করে সার্কের ৭টি দেশ বাংলাদেশ, ভারত, ভুটান, নেপাল, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও শ্রীলঙ্কা। যেখানে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করেন ফ্যাশন হাউজ বিবিআনার ফ্যাশন ডিজাইনার লিপি খন্দকার। ফ্যাশন শোটিতে তিনি বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী খাদি কাপড়ের ওপর রিকশা মোটিফের পোশাকের কালেকশন প্রদর্শন করেন। সার্ক অন্তর্ভুক্ত দেশগুলো থেকে আমন্ত্রিত অতিথিরা বর্ণাঢ্য এই ফ্যাশন শো উপভোগ করেন।
পুরো ফ্যাশন শোর মেকওভারে ছিলেন বাংলাদেশের ডিভাইন বিউটি লাউঞ্জের বাপন রহমান। আরও ছিলেন হেয়ারস্টাইলিস্ট ইমাম হাসান এবং সঙ্গে দুজন খ্যাতিমান মডেল মারিয়া ও মিয়াম। অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা অলি।

গ্রামীণ ইউনিক্লোর বৈশাখী কালেকশন
বাঙালির প্রাণের উৎসব বৈশাখ। নতুন বাংলা বর্ষকে বরণের এই উৎসবকে পরিপূর্ণতা দেয় নতুন পোশাক। নববর্ষে ক্রেতাদের জন্য গ্রামীণ ইউনিক্লো নিয়ে এসেছে বৈশাখী কালেকশন। বৈশাখের বিভিন্ন ঐতিহ্যবাহী মোটিফ ও রঙের সংমিশ্রণে সাজানো হয়েছে বৈশাখের কালেকশনটি। গ্রামীণ ইউনিক্লো প্রতিষ্ঠা থেকেই তিনটি উদ্দেশ্যে কাজ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশের সব মানুষের মাঝে ব্যতিক্রমী পোশাকের মাধ্যমে আনন্দ ও সন্তুষ্টি প্রদান। ব্যবসার মাধ্যমে বাংলাদেশের সামাজিক সমস্যাগুলোর সমাধান। এবং সামাজিক ব্যবসা প্রসারের জন্য সব মুনাফা পুনঃবিনিয়োগ করা।

অস্ট্রেলীয় ফুড ফেস্টিভ্যাল
অস্ট্রেলীয় খাবারের স্বাদ তুলে ধরতে রাজধানীর র্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেন আয়োজন করে ‘এ টেস্ট অব অস্ট্রেলিয়া’ নামে ফুড ফেস্টিভ্যাল। বাংলাদেশি ভোজনরসিকদের ক্যাঙারুর দেশের খাবারের স্বাদ দিতে নয় দিনব্যাপী এ ফেস্টিভ্যালের আয়োজন করা হয়। ২৭ মার্চ র্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান প্রতিষ্ঠানটির জেনারেল ম্যানেজার ক্রিস্টিফ ভলগোলি। তিনি বলেন, প্রতিদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় শুরু হয়ে উৎসব চলবে রাত ১১টা পর্যন্ত। প্রতিজন খাদ্যরসিকের অস্ট্রেলীয় খাবারের স্বাদ নিতে গুনতে হবে ৪ হাজার ৯৯৯ টাকা। ৪ থেকে ১০ বছরের শিশুদের জন্য ৩ হাজার টাকা। র্যাডিসনের এক্সিকিউটিভ সেফ জেড আর্চডিকেন বলেন, বাংলাদেশের মনুষকে অস্ট্রেলিয়ার আঞ্চলিক স্বাদ দেয়ার জন্য এ আয়োজন। উৎসবে ৬০ শতাংশ খাবারই অস্ট্রেলিয়া থেকে আনা হয়েছে। বিশেষ ভাবে রয়েছে অস্ট্রিলিয়ার মাছ ও হাঁস। এছারা অস্ট্রেলিয়া থেকে আনা ভেড়ার মাংসের বেশ কয়েকটি পদ থাকবে এ উৎসবের প্রধান আকর্ষণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back To Top